ঢাকা   ২৬শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ১২ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন নবনিযুক্ত সেনাবাহিনী প্রধান বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরাম সিলেটের ৭ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠিত বড়বাজারের মেহতা বিল্ডিং এর চারতলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড কুমিল্লায় নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কলেজ অ্যাডমিশন পোর্টালের সার্বিক অব্যবস্থার প্রতিবাদে, শ্যামবাজার থেকে কলেজ স্ট্রীট পর্যন্ত মহামিছিল করলেন বেলা বড়াইগ্রামের নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহণ শেরপুরে ট্রাক্সফোর্স অভিযানে গ্যাস ডিলার পাম্প ও ক্লিনিকে জরিমানা আটপাড়ায় জিপি-এ ৫ প্রাপ্ত এসএসসি কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা বরিশালের প্রাচীন ঐতিহ্য মোঘল আমলের দৃষ্টিনন্দন মিয়া বাড়ি মসজিদ

১৮এতিম শিশু শিক্ষার্থীর গায়ে নতুন পোশাক পরিয়ে দিলেন “স্মার্ট মানিকছড়ি”

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বুধবার, মার্চ ১৩, ২০২৪
  • 7 শেয়ার

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

রোজার প্রথম দিনেই খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার মানবিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্মার্ট মানিকছড়ি’র উদ্যোগে ১৮ জন এতিম শিশু শিক্ষার্থী নতুন পোশাক পেয়ে আনন্দে আত্মহারা।

উপজেলার সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্মার্ট মানিকছড়ি’র প্রতিষ্ঠাতা মো. শরীফুল ইসলাম একজন মানবিক কর্মী। উপজেলাসহ বিভিন্ন স্থানে অসহায় মানুষের আর্তনাত কিংবা অর্থের অভাবে কারও চিকিৎসা, কারও পড়ালেখা থমকে যাওয়ার সকল বাধা সরিয়ে বিপদগ্রস্ত ব্যক্তি বা পরিবারে হাসি ফুটানোই যেন এই সংগঠকের কাজ! সারা বছরই অসহায় মানুষের পাশে থেকে এলাকার দানবীর ও মানবিক ব্যক্তিবর্গের দ্বারে দ্বারে ঘুরে সংগৃহীত অর্থে সবার আগে অভাবগ্রস্থ বা বিপদগ্রস্ত ব্যক্তিকে সহায়তা করে ইতোমধ্যে মানুষের ভালোবাসা কুড়িয়ে নিতে সক্ষম হয়েছে মানবিক যুদ্ধা মো. শরীফুল ইসলাম।
রমজানের প্রথম দিন উপজেলার তিনটহরী মহিউস সুন্নাহ হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিম খানায় পড়ুয়া পিতা-মাতাহীন ১৮জন এতিম শিশু শিক্ষার্থীর জন্য মানুষের সহায়তায় নতুন পোশাকের ব্যবস্থা করে তা পরিয়ে দেন স্মার্ট মানিকছড়ির প্রতিষ্ঠাতা ও মানবিক কর্মী মো. শরীফুল ইসলাম শরীফ! মাদরাসার পরিচালক হাফেজ মাওলানা ফরিদ আহম্মদ বলেন, আমার মাদরাসার এতিমখানার ১৮ জন এতিমের গায়ে নতুন পোশাক পরিয়ে দেওয়ার মহতি উদ্যোগ নিয়েছে মো. শরীফুল ইসলাম! সে মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে অর্থ সংগ্রহ করে এ ধরণের মহতি কাজ করে ইতোমধ্যে মানবিক কর্মী হিসেবে পরিচিত অর্জন করেছেন।

মানুষের আপদে বিপদে অন্যের কাছ থেকে অর্থ চেয়ে এনে বিপদগ্রস্ত মানুষকে স্বস্তি দেওয়া বা অভাবগ্রস্থের মুখে হাসি ফুটানোর মনমানসিকতা আজকাল কয়জনের হয়! আল্লাহ তাঁর এই মহতি কাজ কবুল করুক।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪