ঢাকা   ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জিম্মি নাবিকদের ছাড়তে ৫০ লাখ ডলার চেয়েছে জলদস্যুর

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বুধবার, মার্চ ১৩, ২০২৪
  • 40 শেয়ার

জামাল উদ্দীন,  কক্সবাজার প্রতিনিধি:

বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ ‘এমভি আবদুল্লাহ’ নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে সোমালীয় জলদস্যুরা । গতকাল মঙ্গলবার (১৩ মার্চ) মোজাম্বিক থেকে কয়লা নিয়ে আরব আমিরাতে যাওয়ার পথে ভারত মহাসাগরে জাহাজটির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে প্রায় অর্ধশত সশস্ত্র জলদস্যু। জাহাজের ২৩ বাংলাদেশি নাবিককেও জিম্মি করে রেখেছে তারা।

জাহাজে থাকা ২৩ জন নাবিকের মধ্যে ছিলেন চট্টগ্রামের আইনুল হক অভি নামের একজন নাবিক। বাংলাদেশি সময় আজ বুধবার (১৩ মার্চ) সকাল ৭টায় অভির তার মাকে এক মিনিটের একটি ভয়েস মেসেজ পাঠান। জিম্মি হওয়া বাংলাদেশি জাহাজে ২৫ দিনের খাবার আছে জিম্মি হওয়া বাংলাদেশি জাহাজে ২৫ দিনের খাবার আছে ছেলে অভির ভয়েস মেসেজের বার্তা সম্পর্কে তিনি বলেন, আজ সকাল ৭টায় এক মিনিটের ভয়েস মেসেজ পাঠিয়েছে ছেলে। এতে সে বলে টাকা না দিলে তাদের সবাইকে মেরে ফেলবে জলদস্যুরা।

নাবিক অভির মা বলেন, ‘জলদস্যুরা মুক্তিপণ হিসেবে ৫০ লাখ মার্কিন ডলার চেয়েছে। এই অর্থ তাদের দিলেই মুক্তি মিলবে নাবিকদের।’ মোজাম্বিকের মাপুতু বন্দর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাওয়ার পথে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় বেলা দেড়টায় জাহাজটিতে উঠে নিয়ন্ত্রণ নেয় সোমালিয়ার জলদস্যুরা। জাহাজটিতে ৫৫ হাজার টন কয়লা রয়েছে। জাহাজটিতে থাকা ২৩ জন নাবিকের সবাই বাংলাদেশি। জাহাজটি চট্টগ্রামের কবির গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান এস আর শিপিং লিমিটেডের মালিকানাধীন ।

যেভাবে জলদস্যুরা বাংলাদেশি জাহাজ নিয়ন্ত্রণে নেয়যেভাবে জলদস্যুরা বাংলাদেশি জাহাজ নিয়ন্ত্রণে নেয়
যুক্তরাজ্যের মেরিটাইম ট্রেড অপারেশন (ইউকে এমটিও) তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিসু থেকে ৬০০ নটিক্যাল মাইল পূর্বে এ ঘটনা ঘটেছে। দুটি নৌযানে (একটি বড় এবং আরেকটি ছোট) চড়ে জাহাজটির কাছাকাছি এসে জলদস্যুরা জাহাজটির নিয়ন্ত্রণ নেয়। ইউকে এমটিও সমুদ্র চলাচলকারী অন্য জাহাজগুলোতে সতর্কতার সঙ্গে চলাফেরা করতে বলেছে

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪