ঢাকা   ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে “পিএইচপি ফ্যামিলি ফ্লোর” আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, মার্চ ৭, ২০২৪
  • 43 শেয়ার

এম ওসমান চৌধুরী, বিশেষ প্রতিনিধি (চট্টগ্রাম):

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের নতুন ভবনের ৭ম তলায় পিএইচপি ফ্যামিলির অর্থায়নে নির্মিত “পিএইচপি ফ্যামিলি ফ্লোর” অদ্য ৬ মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়। পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান আলহাজ ।  সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান আনুষ্ঠানিক ভাবে তার পরিবারের সকল সদস্যগণকে নিয়ে উক্ত ফ্লোর উদ্বোধন করেন।

এ উপলক্ষে হাসপাতালের লেকচার গ্যালারীতে কার্যনির্বাহী কমিটির প্রেসিডেন্ট (ভারপ্রাপ্ত) সৈয়দ মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন এর সভাপতিত্বে ও জেনারেল সেক্রেটারী জনাব মোহাম্মদ রেজাউল করিম আজাদের সঞ্চালনায় এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক আজাদীর সম্পাদক জনাব এম এ মালেক। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন দৈনিক আজাদীর পরিচালনা সম্পাদক জনাব ওয়াহিদ মালেক, সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমানের সহধর্মিনী মিসেস তাহমিনা রহমান, পিএইচপি ফ্যামিলির ভাইস চেয়ারম্যান জনাব মুহাম্মদ মহসিন, পরিচালক জনাব আকতার পারভেজ, জনাব মুহাম্মদ আলী হোসাইন, জনাব মুহাম্মদ আমির হোসাইন, সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমানের কন্যা ফাতেমা জাহারা, হাসপাতালের কার্যনির্বাহী কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট জনাব আবদুল মান্নান রানা, জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারী জনাব সৈয়দ আজিজ নাজিমউদ্দিন, অর্গানাইজিং সেক্রেটারী জনাব মোহাম্মদ সাগির, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য জনাব মোঃ আলমগীর পারভেজ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল চট্টগ্রামের আপামর জনসাধারণের হাসপাতাল। এই হাসপাতালের সাথে পিএইচপি পরিবারের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। তিনি এই হাসপাতালের সাথে পিএইচপি পরিবারকে কাজ করার সুযোগ দানের জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। ভবিষ্যতেও পিএইচপি পরিবার এই হাসপাতালের সাথে কাজ করে যাবে মর্মে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আমি সম্প্রতি স্থাপিত ক্যান্সার হাসপাতালসহ হাসপাতালের সার্বিক কার্যক্রম দেখে খুবই মুগ্ধ হয়েছি। তিনি হাসপাতালের পরিচালনা পরিষদ, সকল কর্মকর্তা কর্মচারী ও এই হাসপাতালের উন্নয়নে যারা অবদান রেখেছেন তাদের সবার প্রতি পিএইচপি পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শ্রদ্ধা জানান। তিনি ক্যান্সার হাসপাতালের জন্য আরো ৫ কোটি টাকা অনুদান প্রদানের ঘোষণা প্রদান করেন। উল্লেখ্য, পিএইচপি ফ্যামিলি ইতোপূর্বে নতুন হাসপাতাল ভবনের জন্য ৫ কোটি টাকা অনুদান প্রদান করেছেন এবং হাসপাতালের ৭ম তলায় একটি ফ্লোর পিএইচপি ফ্যামিলির নামে নামকরণ করা হয়েছে। প্রধান অতিথি মেডিকেল কলেজ ও নার্সিং কলেজের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মটিভেশনালমূলক বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি তার নিজের জীবনে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার বিষয়টি তাদের সামনে তুলে ধরেন। তিনি বলেন, আমি ১০০ টাকার চাকুরী নিয়ে জীবন শুরু করি। সেখান থেকে আজকে আমাদের এই বিশাল পিএইচপি পরিবার। তিনি বলেন, জীবনে প্রতিষ্ঠা পেতে হলে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। পরিশ্রমের কোনো বিকল্প নেই। অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে হবে। সামর্থ অনুযায়ী গরীব মানুষকে দান করার উপর তিনি বিশেষভাবে গুরুত্ব দেন। তিনি আরো বলেন, আল্লাহ আমাদেরকে যে শক্তি দিয়েছেন তাকে কাজে লাগাতে হবে। এই শক্তিকে কাজে লাগিয়ে আমাদেরকে আমাদের লক্ষ্য অর্জন করতে হবে। বিশেষ অতিথি জনাব এম এ মালেক বলেন, জনগণের অর্থায়নে আমরা সম্প্রতি এখানে ক্যান্সার হাসপাতাল চালু করেছি। চট্টগ্রামের মানুষ এখন স্বল্প খরচে এখানে রেডিওথেরাপিসহ পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা পাবে। ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য এখন রোগীদের চট্টগ্রামের বাইরে যেতে হবেনা। তিনি আরো বলেন, এই ক্যান্সার হাসপাতাল চালু করার জন্য আমাদেরকে বিরাট অংকের লোন করতে হয়েছে।

এই লোনের টাকা পরিশোধ হয়ে গেলে এখানে আরো সাশ্রয়ী মূল্যে ক্যান্সার রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেয়া যাবে। তিনি এ ব্যাপারে সহযোগীতার জন্য প্রধান অতিথির দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন পিএইচপি ফ্যামিলির ম্যানেজিং ডাইরেক্টর জনাব মুহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, ডাইরেক্টর জনাব মুহাম্মদ আনোয়ারুল হক, জনাব মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, হাসপাতালের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ডাঃ ফজল করিম বাবুল, জনাব মোঃ হারুন ইউসুফ, জনাব এ এস এম জাফর, মেডিকেল কলেজের এডভাইজার প্রফেসর এ এস এম মোস্তাক আহমেদ, ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল প্রফেসর অসীম কুমার বড়ুয়া, পরিচালক (প্রশাসন) ডাঃ মোঃ নূরুল হক, উপ-পরিচালক (প্রশাসন) জনাব মোহাম্মদ মোশাররফ হোসাইন, উপ-পরিচালক (মেডিকেল এ্যাফেয়ার্স) ডাঃ এ. কে. এম আশরাফুল করিম, হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগের অধ্যাপকবৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪