ঢাকা   ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :

চট্টগ্রামে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, জুলাই ৪, ২০২৪
  • 281 শেয়ার

মোহাম্মদ নুরুল আবছার, জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি:

 

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা’ হৃদয়ের রামগড়, পার্বত্য ক্রাইমস জগৎ’ সহ বিভিন্ন ভুয়া ফেইসবুক আইডি সহ ব্যক্তিগত আইডি ব্যবহার করে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা-কর্মী ও আলেম-ওলামাদের বিরুদ্ধে অশ্লীল, ভুয়া ও মানহানিকর লেখা-লেখির দায়ে ৪ জনকে আসামী করে ২০২৩ সালের সাইবার নিরাপত্তা আইনের ২৪, ২৫, ২৬, ২৯ ও ৩৫ ধারায় বিভাগীয় সাইবার ট্রাইব্যুনাল, চট্টগ্রামে সাইবার নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছেন একজন ভুক্তভোগী আলেম।

গত মঙ্গলবার (২ জুলাই) চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত থেকে মামলাটি দায়ের করেন আঁধার মানিক রাস্তার মাথা ফরেস্ট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা ক্বারী ইব্রাহিম হুসাইন রহিমী। মামলার আসামীরা হলেন রামগড় উপজেলা কোর্ট জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন ও রামগড় চৌধুরী পাড়া ৫ নং ওয়ার্ডের আব্দুল খালেকের ছেলে মোঃ আব্দুস সামাদ (৩২), ও বাগান বাজার কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদের ইমাম আবুল হোসাইনের ছেলে মোঃ বেলাল হোসাইন সাদী(৩০), ও বলিপাড়ার হাফেজ ইব্রাহিমের ছেলে মোঃ মনছুর আহমেদ (২০)এবং চৌধুরীপাড়া জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন মোঃ আবু রায়হান (২৩) চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবিরের আদালত বাদীপক্ষের অভিযোগ শুনে মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে মামলাটি তদন্তের নির্দেষ দেন।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে ‘হৃদয়ে রামগড়’, ‘রামগড়ের মাটি’, পার্বত্য ক্রাইমস জগৎ’ সহ কয়েকটি ভুয়া ফেইসবুক আইডি ব্যবহার করে রামগড়ের কয়েকজন জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা-কর্মী, ও উপজেলার কয়েকজন আলেম-ওলামাকে নিয়ে মোঃ আব্দুস সামাদ গং ফেইসবুকে বিভিন্ন মানহানিকর ও মিথ্যা অপপ্রচার করে আসছিলো। বাদী যখন এই গংয়ের ষড়যন্ত্রের কথা বুঝতে পারে তখন আব্দুস সামাদ ও বেলাল সাদী সহ (অজ্ঞাত ১২-১৫) জন সন্ত্রাসী বাদীর নিজ কর্মস্থান আঁধার মানিক রাস্তার মাথা (কলোনী) নামক এলাকায় মাওলানা ইব্রাহিম হুসাইন রহিমীর উপর অতর্কিত হামলা ও কিডনাফ চেষ্টা চালায়। এবং শারিরিক ও মানসিক ভাবে আঘাত করে জোর পূর্বক স্বীকারোক্তি গ্রহণ করে। পরে সে ঘটনা আংশিক ভিডিও করে বিভিন্ন মেসেঞ্জার ওয়াটসাপ গ্রুপে শেয়ার করে। পরের দিন ২৭/০৬/২০২৪ ইং তারিখে সকাল আনুমানিক ১০:৩০ মিনিট থেকে ‘মোঃ আব্দুস সামাদ’ ‘Balal Hossain Sadi’ ‘Mansur Ahmed’ ‘শিল্পী আবু রায়হান মোমেনশাহী’ আসামীদের নিজের ব্যবহারকৃত আইডি থেকে বিভিন্ন মিথ্যা তথ্য এবং মানহানিকর অপপ্রচার করে আসছে। এতে মাওলানা ক্বারী ইব্রাহিম হুসাইন রহিমী মানসিক ও শারিরিক ভাবে বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়ে। পরে বাদী সুস্থ হয়ে আব্দুস সামাদ ও তার ৩ সহযোগী সহ অজ্ঞাত ১২-১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।

পরবর্তীতে ভুক্তভোগী ইমাম ও খতিব মাওলানা ক্বারী ইব্রাহিম হুসাইন রহিমী ইমাম খতিবদের জাতীয় সেচ্ছাসেবী সংগঠন শানে সাহাবার নিকট সাহায্য পার্থনা করেন। শানে সাহাবা খতিব কাউন্সিল বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সিদ্ধান্ত মানতে রাজি নয় মোঃ আব্দুস সামাদ ও বেলাল সাদী গং। পরে শানে সাহাবা খতিব কাউন্সিল বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে ভুক্তভোগী ইমাম কে থানায় অভিযোগ দায়ের করার পরামর্শ দেন। ভুক্তভোগী ইমাম দাঁতমারা পুলিশ পাড়িতে অভিযোগ দায়ের করলে দাঁতমারা পুলিশ পাড়িতে উভয় পক্ষ কে ডেকে এনে বিষয় টি সমাধান করার কথা বলেন। কিন্তু বিষয় টির কোন সুস্থ সমাধান না হওয়ায় সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি দায়ের করেন ভুক্তভোগী ইমাম।

এ বিষয়ে যানতে চাইলে মামলার বাদী ও আঁধার মানিক রাস্তার মাথা ফরেস্ট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম বলেন, একদিকে যেমন ফেইসবুকে মিথ্যা লেখালেখি অন্য দিকে সন্ত্রাসী হামলা এক কথায় মানসিক এবং শারিরিক সামাজিক এসব কারনে একদমই অতিষ্ঠ হয়ে যাচ্ছি।

বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে ‘হৃদয়ে রামগড়’ ‘রামগড়ের মাটি’ ‘পার্বত্য ক্রাইমস জগৎ’ এ আইডি গুলো মোঃ আব্দুস সামাদ গং দারা পরিচালিত হয় এটা তাদের কর্মকান্ড প্রমাণ করে।খাগড়াছড়ি বাসি চাই রামগড়ের সকল ফেইক আইডি বন্ধ হোক এবং এ সকল সন্ত্রাসীদেরকে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী পূর্বক আসামীদের কঠোর শাস্তি দেওয়া হোক।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪