ঢাকা   ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোলাপগঞ্জের কালিকৃষ্ণপুরে দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি: ৬ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪
  • 140 শেয়ার

 

বিভাগীয় ব্যুরো চীফ সিলেট,

গোলাপগঞ্জ উপজেলার ১১নং শরীফগঞ্জ ইউনিয়নের অন্তর্গত কালিকৃষ্ণপুরে এক দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। চোরেরা মধ্যরাতে দোকানের সামনের সাটারের নিচ দিয়ে গর্ত করে প্রবেশ করে প্রায় ৬ লক্ষ টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে।

জানা যায়,গত সোমবার রাত আনুমানিক ৩টার দিকে গোলাপগঞ্জের কালিকৃষ্ণপুর গ্রামে মেসার্স আব্দুল আওয়াল স্টোর এ চুরির ঘটনা ঘটে।এই দোকানের সত্ত্বাধিকারী কালিকৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত আব্দুল আওয়ালের ছেলে আনোয়ার হোসেন বাদশা।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কালিকৃষ্ণপুর গ্রামে মেসার্স আব্দুল আওয়াল স্টোর নামক মুদি দোকানের অবস্থান দোকানের সত্ত্বাধিকারী আনোয়ার হোসেন বাদশার বাড়ির পাশে।দোকানকোঠা চার দেয়ালসহ  টিনসেডের পরিপূর্ণ।দোকানে থাকা প্রচুর মালামালের চিহ্ন আছে, কিন্তু বর্তমানে জিনিসপত্র নেই।দোকানের সামনের সাটারের নিচে গর্ত করা,যে গর্ত দিয়ে চুর প্রবেশ করে।এছাড়াও দোকানে চুরি হওয়ার অসংখ্য চিহ্ন পাওয়া যায়।

এব্যাপারে আব্দুল আওয়াল স্টোরের স্বত্বাধিকারী আনোয়ার হোসেন বাদশা  বলেন,চোরের দল তার দোকানের তালা ভেঙ্গে দোকানে থাকা সয়াবিন তেল ২৭২ লিটার, ডিজেল ৭০ লিটার,মবিল ৩০ লিটার,চিনি ১৫০ কেজি, মসুরি ডাল ৭৫ কেজি,টর্চ লাইট ছোট বড় ৮০ টা ও দোকানে থাকা ইলেকট্রিন মালামাল ব্যবহারের বিভিন্ন রকমের তৈল,ড্রিংকস এবং বিভিন্ন জিনিসপত্র নিয়ে যায়। এতে তার প্রায় ৬ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুককারী এক ব্যাক্তি জানান, আব্দুল আওয়াল স্টোরে বাজারের অন্যান্য দোকান থেকে বেশি মালামাল ছিল। দোকানে লক্ষ লক্ষ টাকার আসবাবপত্র চুরি হওয়ায় দোকান শূন্য অবস্থায় রয়েছে। যা দেখে আমরা গ্রামবাসী চিন্তিত ও আতঙ্কিত।

এদিকে বাজারের কয়েকশত গজ দূরে বসতবাড়ীর পাশে এ চুরি সংঘটিত হওয়ায় ব্যবসায়ী মহলের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৯শে ফেব্রুয়ারী,২০২৩ইং (সোমবার) মধ্যরাতে  উপজেলার কালিকৃষ্ণপুর গ্রামে এই দোকানে চুরি সংঘটিত হয়।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪