ঢাকা   ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কলকাতা পুরসভা মজদুরস কো অপারেটিভ সোসাইটি লি, এর দশম তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে, একগুচ্ছ প্রকল্প ও দুটি অ্যাম্বুলেন্সের শুভ সূচনা হল

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বুধবার, মার্চ ৬, ২০২৪
  • 41 শেয়ার

সমরেশ রায়, কলকাতা প্রতিনিধি: 

আজ ৫ই মার্চ মঙ্গলবার, কলকাতা পৌরসভার সামনে, মন্ত্রী শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এবং কলকাতা পুরসভা মজদুরস কো অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ, এর দশম তম বর্ষপূর্তি উৎসব উপলক্ষে, পৌরসভার শ্রমিকদের জন্য কয়েকটি প্রকল্প চালু করলেন এবং দুটি অ্যাম্বুলেন্স উপহার দিলেন, যাহাতে পরিবারের মানুষেরা প্রয়োজনে এই অ্যাম্বুলেন্স এর মাধ্যমে রোগীকে নির্দিষ্ট জায়গায় নিয়ে যেতে পারে। অ্যাম্বুলেন্স দুটি তুলে দেন, কলকাতা পৌরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ মহাশয়ের হাতে। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় এবং পুরসভা মজদুরস কো অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান শ্রী শচীনাথ ব্যানার্জি সহ অন্যান্যরা। সভা শুরুর আগে প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে এই অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়, এরপর অতিথি দেরকে একে একে বরণ করে নেন, উত্তরীয় ও ব্যাচ পরিয়ে।

আজকের শুভ সূচনায় যে প্রকল্পগুলি শ্রমিকদের জন্য,ও শ্রমিকদের পরিবারদের জন্য চালু করলেন, সেগুলি হল-প্রথম প্রকল্পটি হলো শ্রমিকদের জন্য, শ্রমিক সাথী প্রকল্প। এটি একটি তহবিল প্রকল্প। এই তহবিল প্রকল্প চলাকালীন যারা মারা যাবে, তাদের পরিবার এককালীন ৫০ হাজার টাকা পাবে। সর্বোচ্চ লোনের পরিমাণ ৬০ হাজার টাকা থেকে বেড়ে ৫ লক্ষ টাকা করা হয়েছে। কোন লোন চলাকালীন ১৬ মাস শোধ হবার পরে, প্রয়োজনে পুনরায় লোন পেতে পারবে। সদস্যদের মৃত্যুকালীন তৎক্ষণাৎ খরচ হিসাবে এককালীন নগদ পাঁচ হাজার টাকা অনুদান পাবেন। পৌর সভার দক্ষকর্মী, যাহারা ক্রেডিট সোসাইটি সদস্য নয়, এই সংস্থাতে ২ লক্ষ টাকা লোনের সুবিধা পাবেন।

সদস্যদের টাকা জমানো নিমিত্তে রেকারিং ডিপোজিট এর সুবিধা পাবেন। সদস্যদের অবসরকালীন সম্বর্ধনার ব্যবস্থায় সাফারী ট্রলি ব্যাগ প্রদান করা হবে। কো অপারেটিভ এর পক্ষ থেকে সদস্যদের একটি কন্যা সন্তানের জন্য, কন্যা সাথী প্রকল্প গ্রহণ করেছে, এই প্রকল্পে ৫০০০০ টাকা বিনা সুদে ঋণ দেওয়া হবে।সদস্যদের পুত্র/ কন্যা মাধ্যমিক বা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথম বিভাগের পাশ করলে ৫০০০ টাকা দেওয়া হবে।

সংক্ষিপ্ত বক্তৃতার মধ্য দিয়ে বলেন সমবায়ের সদস্যদের ভারতীয় বিমান অধীনে ক্ষুদ্র বীমা সামাজিক প্রকল্পে আওতাভুক্ত করনের কাজে ভারত বর্ষের মধ্যে এই সমবায় প্রথম স্থান অধিকারের শিরোপা অর্জন করেছে। এবং মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে, পৌরসভার মজদুর ইউনিয়নদের জন্য এতগুলি প্রকল্প চালু করলেন ,তার সাথে সাথে শ্রমিকদের স্বার্থে দুটি অ্যাম্বুলেন্স উদ্বোধন করে শ্রমিকদের চলার পথ এগিয়ে দিলেন, মা এত বছরেও কোন পার্টি করেনি পৌরসভায়। মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সমানভাবে সকলের কথা ভাবেন এবং সকলের জন্য বিভিন্ন রকম প্রকল্পের ব্যবস্থা করেন। যাহার মধ্য দিয়ে সাধারণ মানুষ উপকৃত হয়, এর সাথে সাথে শোভন দেব চট্টোপাধ্যায় কে স্বাগত জানান এরকম একটি মহৎ কাজে উদ্যোগ নেওয়ার জন্য। এই মজদুর ইউনিয়ন তৈরি করেছেন, নিজের হাতে এবং একটি কো কো-অপারেটিভ সোসাইটির তৈরি করার জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন ।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪